Main Menu

নিউইয়র্কে ‘বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ও প্রবাসীদের করণীয়’ শীর্ষক সভা

নিউজ ডেস্ক:
নিউইয়র্কে ‘বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ও প্রবাসীদের করণীয়’ শীর্ষক সভা।
যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে ‘বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ও প্রবাসীদের সমস্যা সমাধানে করণীয়’- শীর্ষক এক নেটওয়ার্কিং সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার নিউইয়র্ক শহরের একটি হোটেলে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রবাসীদের জানমালের নিরাপত্তা বিধান বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের ব্রান্ডিংয়ে অপরিহার্য অংশ বলে মত দেন বক্তারা।

সেন্টার ফর এনআরবি’র উদ্যোগে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নিউ ইয়র্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল ড. মনিরুল ইসলাম।

এনআরবি সেন্টারের চেয়ারপারসন এম এস সেকিল চৌধুরীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সোসাইটির কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী, ডা: মাসুদুল হাসান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মুকিত চৌধুরী, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়, শিল্পী শহীদ হাসান, টাইম টেলিভিশনের সিইও আবু তাহের, বাংলাদেশ ল’ সোসাইটির সভাপতি মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীন, বাংলাদেশ সোসাইটির প্রাক্তন সভাপতি ও ড্রামা সার্কেল এর প্রতিষ্ঠাতা নার্গিস ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, ইউএস বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি লিটন আহমেদ, স্ট্যান্ডার্ড এক্সপ্রেস এর প্রধান নির্বাহী মো. মালেক, সানম্যান এক্সপ্রেস এর প্রধান নিবার্হী মাসুদ রানা তপন, শেখ আতিকুর রহমান, সৈয়দ আতিকুল ইসলাম, মো. নজরুল ইসলাম, সিলেট জকিগঞ্জ প্রেসক্লাবের প্রাক্তন সভাপতি আব্দুল খালিক, বাংলাদেশ আমেরিকা ওয়েলফেয়ার সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা জুলকার হায়দার, ব্যবসায়ী ফকু চৌধুরী, ব্যবসায়ী সরদার সিরাজুল ইসলাম, সমাজসেবী রোকসান আরা, হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা নির্বাহি কামাল চৌধুরী ও জ্যামাইকা সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক আল আমিন রাসেল প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কনসাল জেনারেল ড. মনিরুল ইসলাম বাংলাদেশের সাম্প্রতিক অগ্রগতির একটি চিত্র তুলে ধরে বলেন, ‘বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উন্নয়নে প্রবাসীরা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন। তারা বিদেশীদের কাছে দেশের ভালো দিকগুলো তুলে ধরে দেশের ভাবমূর্তি উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘সরকার ও নিউইয়র্ক কনস্যুলেট প্রবাসীদের সমস্যাসমূহ সমাধানে আন্তরিক রয়েছে, নানা রকম সীমাবদ্ধতার কারণে বিশেষ করে জনবল ও কারিগরি কারণে বিভিন্ন সময়ে সেবা পেতে বিলম্ব হয়। কিন্তু এতে আমাদের আন্তরিকতার কোন অভাব নেই।’

অনুষ্ঠানের সূচনা বক্তব্যে সেকিল চৌধুরী প্রবাসীরা দেশের মূল্যবান সম্পদ আখ্যা দিয়ে বলেন, ‘প্রবাসীরা দেশের মূল্যবান সম্পদ, এর সুরক্ষা দেওয়া আমাদের সকলের দায়িত্ব। সরকারি নীতিমালা থাকলেও বিভিন্ন সংস্থায় কর্মরত ব্যক্তির ব্যক্তিগত ত্রুটির কারণে প্রবাসীরা হয়রানির সম্মুখীন হচ্ছেন, এ ব্যাপারে সরকারের আরো কঠোর নজরদারি প্রয়োজন।’

তিনি এ ব্যাপারে সরকারের পাশাপাশি দেশে ও প্রবাসে কর্মরত সামাজিক প্রতিষ্ঠান নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণ কামনা করেন।

আলোচনা পর্বে অংশ নিয়ে প্রবাসী নেতৃবৃন্দ তাদের নানা বিড়ম্বনার কথা তুলে ধরেন। বিশেষ করে, শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায় তার সম্পত্তি নিয়ে দেশে বিড়ম্বনার কথা উল্লেখ করেন, প্রবাসী ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম ১২ বছর আগে মূল্য পরিশোধ করে এখনো প্লট এর কাগজপত্র না পাওয়ার কথা বলেন, হাসপাতাল কর্মী কামাল চৌধুরী সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ কর্তৃক তার উত্তরার বাসায় নিয়ত হুমকি পাওয়ার বিষয়টি তুলে ধরে এ বিষয়ে আইনি সহায়তা কামনা করেন।

এছাড়া প্রবাসী নেতৃবৃন্দ দ্বৈত নাগরিকত্বসহ এনআইডি কার্ড ও পাসপোর্ট নবায়নের দীর্ঘসূত্রতার কথা উল্লেখ করেন।

একচেঞ্জ হাউজের প্রধান নির্বাহীগণ ডলারের সরকারি মূল্য ও বাজার মূল্যের সমন্বয় সাধনের আহ্বান জানান এবং রেমিটেন্স ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির জন্য জেলায় জেলায় সরকারিভাবে আবাসন প্রকল্প স্থাপন করে প্রবাসীদের বিনিয়োগের সুযোগ দেওয়ার কথা বলেন।

বহির্বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি উন্নয়নে প্রবাসীদের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে দলমত নির্বিশেষে সকল প্রবাসীকে কাজে লাগাবার জন্য বক্তারা সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে ব্যবসায়ী আশরাফউদ্দিন, জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের ভাইস—প্রেসিডেন্ট মঞ্জুর চৌধুরী, শ্রীমঙ্গল সমিতির সভাপতি শিপু আহমদ, সাংবাদিক লাভলু আনসার ও রাশেদ আহমদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.