Main Menu

ইতালির পুগলিয়ায় কৃষিশ্রমিক ঘাটতি, বিদেশি শ্রমিক আনার দাবি

বিদেশবার্তা২৪ ডেস্ক:
ইতালির দক্ষিণের পুগলিয়া অঞ্চলে কৃষি খামারে কর্মীদের সংখ্যায় ঘাটতি দেখা দিয়েছে বলে জানিয়েছে সেখানকার কৃষক সমিতি৷ কৃষক সমিতি ‘কোলডিরেটটি’ জানায়, এই অঞ্চলের চেরি অর্কিড এবং টমেটো খামারে কাজ করার মতো পর্যাপ্ত লোকবল নেই৷ এই কারণে ৩০ হাজার কর্মদিবস নষ্ট হচ্ছে৷ এমন কর্মী ঘাটতির কারণে সেখানকার কৃষি উৎপাদনও ব্যাহত হচ্ছে বলে জানান তারা৷

কর্মী সংকট কাটাতে ইউরোপের বাইরে থেকে কৃষিশ্রমিক আনার দাবি জানিয়েছেন সমিতির নেতারা৷

এদিকে ইতালির কৃষি ও অর্থনীতি বিষয়ক গবেষণা সংস্থা সিআরইএ-এর তথ্যমতে,এই ঘাটতি পূরণ করতে প্রতি মৌসুমে গড়ে ১২ লাখ শ্রমিক প্রয়োজন৷কোলডিরেটটি-এর পুগলিয়া শাখা কর্তৃপক্ষ বলেন, ইতালি সরকার গ্রিনপাস অর্থাৎ করোনা টিকা অথবা রোগমুক্তির সনদ থাকার বাধ্যবাধকতা বাতিল করার পর বিদেশি কর্মীরা আবার সহজেই মাঠে ফিরে আসবে৷ পাশাপাশি, ইতালির কৃষিকাজও দ্রুত হবে৷এই পদক্ষেপের ফলে বিদেশি কর্মীদের দীর্ঘ আমলাতান্ত্রিক জটিলতা পোহাতে হবে না৷ এখন তাদের ইতালি আনার প্রক্রিয়া দ্রুততর করে কর্মীদের ঘাটতি মেটানো সম্ভব৷

কৃষক সমিতির মতে, পুগলিয়ার এক-চতুর্থাংশের খাদ্যশস্য উৎপাদন হয় বিদেশি শ্রমিকদের শ্রমের ফলেই৷ সমিতি জানায় পুগলিয়ার কৃষিখাতে ৩৯ হাজার বিদেশি শ্রমিক কর্মরত৷ কৃষিখাতের উৎপাদন ধরে রাখতে যে শ্রম প্রয়োজন তার শতকরা ২২.৪ শতাংশই এই বিদেশি শ্রমিকদের দিয়ে হয়ে থাকে৷

সমিতির তথ্য অনুযায়ী, এই সব বিদেশি কর্মীরা বেশিরভাগই নির্দিষ্ট মেয়াদি চুক্তিতে কাজ করেন৷তারা কাজের মৌসুমে অন্য দেশ থেকে আসেন এবং মৌসুম শেষ হলে ফিরে যান৷ বিশেষ করে টমেটো, অ্যাসপারাগাস এবং আর্টিচোক উৎপাদনে বিদেশি দক্ষ কর্মীদের অবদান যথেষ্ট৷

কৃষকদের এই সমিতি আরো জানায়, এই এলাকার প্রতি চারটি ফসলের মধ্যে একটি ফসল উৎপাদনের ক্ষেত্রে বিদেশি শ্রমিকের অবদান রয়েছে৷এই উৎপাদন ধরে রাখার জন্য কৃষিশ্রমিকদের উপস্থিতি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.