Main Menu

সৌদি প্রবাসীকে হত্যা মামলায় ৪ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ড

নিউজ ডেস্ক:
নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে মহিউদ্দিন নামের এক সৌদি প্রবাসীকে লোহার শাবল দিয়ে মাথায় আঘাত করে নৃশংসভাবে হত্যা মামলায় চারজনকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (১৫ জুন) বেলা ১১টা ১০ মিনিটের দিকে দুপুরে নোয়াখালীর অতিরিক্ত জেলা জজ প্রথম আদালতের বিচারক মো.ফখরুল উদ্দিন এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত চারজন হলেন- বেগমগঞ্জ উপজেলার ছয়ানী ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বেপারী বাড়ির আবুল কালামের ছেলে মো.মিলন (৩৫) ও তার ভাই পলাশ ওরফে জাম্বু (৩৫) এবং তাদের ভাগনে একই গ্রামের কাজী বাড়ির মো.আলীর ছেলে শেখ ফরিদ (২৭) আব্দুল মান্নান (২৮)।

জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি উপজেলার ছয়ানী ইউনিয়নের বেপারী বাড়ির আবুল বাশার ও পলাশ ওরফে জাম্বুদের বাড়িতে ঘর নির্মাণকে কেন্দ্র করে বিরোধ দেখা দেয়। পরে বিরোধপূর্ণ জায়গায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে পলাশ ও তাদের ভাগনেরা একই বাড়ির বাশারের নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের বেইচের মাঠ ভরাট করতে শুরু করে। এ সময় নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের মালিক বাশার বাধা দিলে একই বাড়ির মিলন,জাম্বু, ও তাদের ভাগনে শেখ ফরিদ ও মান্নানসহ তাদের সাঙ্গপাঙ্গরা বাশারের ছোট ভাই সৌদি প্রবাসী মহিউদ্দিনকে লোহার শাবল দিয়ে মাথায় আঘাত করে করে নৃশংসভাবে হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই বাদী হয়ে ১৩ জনকে আসামি করে ২০১৫ সালের ১ মার্চ বেগমগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

বাদী পক্ষের আইনজীবী আব্দুর রহমান টিংকু বলেন, রায় ঘোষণার সময় এ মামলার সাজাপ্রাপ্ত তিন আসামি পলাতক রয়েছে। রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিল আসামি পলাশ ওরফে জাম্বু। রায় ঘোষণা শেষে পুনরায় আসামিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। একই সাথে এ মামলার ৯ আসামিকে বেকুসুর খালাস দিয়েছে আদালত।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.