Main Menu

ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে সুনামগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতি

নিউজ ডেস্ক:
টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে নদ নদীর পানি আবারও বেড়ে গিয়ে সুনামগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহতার দিকে রূপ নিচ্ছে। সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী বুধবার (১৫ জুন) সকাল ১০ টা পর্যন্ত সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ২৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রভাবিত হচ্ছে।

এছাড়া এরইমধ্যে প্লাবিত হয়েছে সুনামগঞ্জ সদর, বিশ্বম্ভরপুর, তাহিরপুর, দোয়ারা বাজারসহ চারটি উপজেলার নিম্নাঞ্চল। অন্যদিকে শহরের উত্তর আরপিন নগর, মধ্যবাজার, কাজির পয়েন্ট, জগন্নাথবাড়ি রোড, নবীনগর এলাকার বেশ কয়েকটি জায়গার নিম্নাঞ্চল এলাকা পানি প্রবেশ করেছে। এতে করে ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ, স্কুলের শিক্ষার্থীরা এবং ব্যবসায়ী।

 

মধ্যবাজারের ব্যবসায়ী কৃষ্ণ বণিক বলেন, সকাল থেকে রাস্তায় পানি আর একটানা বৃষ্টিতে কোন কাস্টমার নেই বড় খারাপ অবস্থা এখানের।

উত্তর আরপিন নগর এলাকার বাসিন্দা লুকনা বিবি বলেন, ঘরে পানি ঢুকছে না কিন্তু আর কয়েকঘন্টা বৃষ্টি দিলেই ঘরও পানি ডুকে যাবে আমরা অসহায় প্রতিবার বৃষ্টি আইলে আমরা আগে ক্ষতিগ্রস্ত হই।

সুনামগঞ্জের পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জহুরুল ইসলাম বলেন, আবহাওয়া অফিসের দেয়া তথ্যে সুনামগঞ্জে আরও ২ দিন বৃষ্টিপাত থাকবে এসময় বন্যা পরিস্থিতি অবনতি হতে পারে।

 

এদিকে সুনামগঞ্জের বিভিন্ন নিম্নাঞ্চল এলাকায় সৃষ্ট বন্যা মোকাবেলার জন্য সকল রকমের প্রস্তুতি নিয়েছে প্রশাসন। ইতিমধ্যে বন্যাকবলিত এলাকাগুলোতে জরুরী ত্রাণ সহায়তা প্রেরণ ও সকল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সজাগ থাকার নির্দেশনা দিয়েছেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন।

তিনি বলেন, সুনামগঞ্জের ১২টি উপজেলায় ইতোমধ্যে ২০ মেট্রিক টন করে খাদ্য সামগ্রী বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া আমরা জরুরি প্রয়োজনে কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করার জন্য সবাইকে বলা হয়েছে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.