Main Menu

আল ফয়েজ ফাউন্ডেশনের হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

নিউজ ডেস্ক:
সিলেটের জামেয়া ক্বাসিমুল উলুম দরগাহ মাদরাসার শিক্ষাসচিব ও মুহাদ্দিস মাওলানা আতাউল হক জালালাবাদী বলেছেন, বাংলাদেশী হাফেজরা আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় শীর্ষস্থান অর্জন করে বিশ্বের দরবারে দেশের মুখ উজ্জ্বল করছেন। তিনি বলেন, কোরআন তিলাওয়াতে মানুষের আত্মশুদ্ধি ঘটে, কুরআন মানুষকে উচ্চতর মর্যাদায় আসীন করে। তাই যুব সমাজকে কুরআন তিলাওয়াত ও অধ্যয়নে মনোযোগী হতে হবে।
তিনি আরও বলেন, কুরআনে কারীম মানব জাতির হেদায়েত, কল্যাণ, শান্তি ও পরকালীন মুক্তির নির্দেশনা। কোরআন তিলাওয়াতে মানুষের আত্মশুদ্ধি ঘটে, কুরআন মানুষকে উচ্চতর মর্যাদায় আসীন করে।

তাই বিশ্বের তরুণ ও যুব সমাজকে বেশি বেশি কুরআন তিলাওয়াত ও অধ্যয়নে মনোযোগী হতে হবে এবং কুরআনকে জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ধারক-বাহক হিসেবে বাস্তবায়ন করতে হবে।

গত শনিবার ৭ মে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার খাগাইল বাজারে আল ফয়েজ ফাউন্ডেশনের হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
আল ফয়েজ ফাউন্ডেশন সিলেটের চেয়ারম্যান ও নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ মাওলানা রশীদ আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন জামেয়া মাদানিয়া ইসলামিয়া কাজির বাজার মাদরাসার মুহাদ্দিস মাওলানা শাহ মমশাদ আহমদ, আল-ফয়েজ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা হাফিজ মাওলানা ফয়জুর রহমান, যুক্তরাজ্যের ডিআইজি জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা আব্দুল কাইয়ুম, কোম্পানীগঞ্জের ৬নং দক্ষিণ রণিখাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইকবাল হুসেন ইমাদ, সিলেট জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা মোহাম্মদ এহসান উদ্দিন, মাস্টার রুহুল আমীন ও গোয়াইনঘাট প্রবাসী সমাজ কল্যাণপরিষদের সাবেক সভাপতি হাফিজ আবদুল মুবিন।

এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাওলানা জালাল উদ্দিন,হিফজুল কোরআন প্রতিযোগীতার বিচারকমণ্ডলী যথাক্রমে হাফেজ মাওলানা মাহমুদুল হাসান ও হাফেজ মাওলানা রশিদ আহমদ ও খাগাইলের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাওলানা আতিকুর রহমান প্রমুখ।

ফাউন্ডেশনের কো-চেয়ারম্যান মাওলানা মুহাম্মদ জিয়াউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ইমরান হুসাইন সেলিমের যৌথ উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ফাউন্ডেশনের সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান হাফেজ সাজিদুর রহমান। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ফাউন্ডেশনের কোষাধ্যক্ষ মাওলানা মাহবুবুর রহমান ও ফাউন্ডেশনের সদস্য মুফতি কয়েস আহমদ। অনুষ্ঠানের শুরুতে তেলাওয়াত করেন শাহীন আলম। নাশীদ পরিবেশন করেন হাফিজ হুসাইন হাসিব। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাওলানা জালাল উদ্দিন, মাওলানা আতিকুর রহমান, হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতার বিচারক হাফেজ মাওলানা মাহমুদুল হাসান ও হাফেজ মাওলানা রশিদ আহমদ।
সভাপতির বক্তব্যে আল ফয়েজ ফাউন্ডেশন সিলেটের চেয়ারম্যান ও নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ মাওলানা রশীদ আহমদ বলেন, মুসলিম বিশ্বের মধ্যে বাংলাদেশেই সর্বাধিক মসজিদ-মাদরাসা ও দ্বীনের প্রচারক রয়েছেন। তাই দেশের প্রতিটি মসজিদে সাবাহি মক্তব চালুকরণে আলেম-ওলামা ও হাফেজদের এগিয়ে আসতে হবে এবং নিজ নিজ অবস্থান থেকে সবাইকে ভুমিকা পালন করতে হবে।
তিনি কুরআনের খেদমতে সার্বজনীনতা বজায় রেখে দলমত নির্বিশেষে সকল বিবেদ ভুলে সবাইকে একত্রে কাজ করার আহবানও জানান।

অনুষ্ঠান শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনায় বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা হাফিজ মাওলানা ফয়জুর রহমান।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.