Main Menu

৪ গুদামে মিলল ৫৭ হাজার লিটার সয়াবিন তেল

নিউজ ডেস্ক:
খাগড়াছড়ির রামগড়ে এক ব্যবসায়ীর পৃথক ৪টি গুদামে ৫৭ হাজার লিটার সয়াবিন তেলের অবৈধ মজুতের সন্ধান পেয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। অবৈধভাবে তেল মজুত করে বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরির দায়ে রামগড়ের সোনাইপুল বাজারের মেসার্স খাঁন ট্রেডার্স নামে ওই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক মো. ফজলুল করিম পাটোয়ারীকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ সময় একই অপরাধে ওই বাজারের মেসার্স আলমগীর স্টোরকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

শুক্রবার (৬ মে) অভিযান চালিয়ে রামগড় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দীন ওই দুই ব্যবসায়ীকে এ জরিমানা করেন।

জানা গেছে, ভোজ্যতেলের অবৈধ মজুদের খবর পেয়ে রামগড়ের সোনাইপুল বাজারের মেসার্স খাঁন ট্রেডার্সে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ওই প্রতিষ্ঠানের মালিক ফজলুল করিমের ৪টি গুদামে ৫৭ হাজার লিটার সয়াবিন তেল পাওয়া যায়। কোনো ধরনের ডিলিং লাইসেন্স ছাড়া বাজারে কৃত্রিম সঙ্কট সৃষ্টি করে অধিক মুনাফার জন্যই এভাবে তেল মজুদ করা হয়েছে।

একই বাজারের মেসার্স আলমগীর স্টোর নামে আরেকটি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানেও অনুরুপ অভিযান চালিয়ে সয়াবিন তেলের অবৈধ মজুত পাওয়া যায়।

রামগড় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দীন জানান, ডিলার লাইসেন্স ছাড়া ভোজ্যতেলের ডিলার হিসেবে ব্যবসা করা এবং সয়াবিন তেলের অবৈধ মজুতের দায়ে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৫৬-এর ৬ ধারায় মেসার্স খাঁন ট্রেডার্সকে ১ লাখ টাকা এবং মেসার্স আলমগীর স্টোরকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.