Main Menu

রাত পোহালেই ঈদ

নিউজ ডেস্ক:
রমজানের ঐ রোজার শেষে এলো খুশির ঈদ। মাসব্যাপি সিয়াম সাধনা শেষে মঙ্গলবার দেশব্যাপী উদযাপিত হবে পবিত্র ঈদ উল ফিতর। আজ সন্ধ্যা হওয়ার আগ থেকেই কোটি কোটি মুসলমানের চোখ পশ্চিম আকাশের দিকে তাকিয়েছিল এক ফালি বাঁকা চাঁদ দেখার জন্য। অবশেষে কাঙ্ক্ষিত সেই চাঁদের দেখা পেয়েছে। দেখা গেছে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ।

এক মাস সিয়াম সাধনার পর সোমবার এই খুশির ঈদ উদযাপনের জন্য প্রস্তুত বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মুসলমানরা।

ইতিমধ্যে দেশবাসী মেতেছেন ঈদের আনন্দে। টিভি-বেতারে বাজতে শুরু করেছে জাতীয় কবি কাজী নজরুলের কালজয়ী সেই গান ‘ও মন রমজানের ওই রোজার শেষে এল খুশির ঈদ…’। পাড়া-মহল্লার মসজিদ থেকেও ভেসে আসছে ‘ঈদ মোবারক’ ধ্বনি।

চাঁদ দেখার পর এখন ঘরে ঘরে চলছে পিঠা-পায়েস বানানোর তোড়জোড়। শিশু-তরুণ-বৃদ্ধ সবাই প্রস্তুতি নিচ্ছে আগামীকাল ঈদগায়ে গিয়ে নামাজ আদায়ের। কিশোরী-তরুণীরা বসছে মেহেদিতে হাত রাঙাতে।

মুসলিম সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় এই আনন্দ-উৎসব সামাজিক সম্প্রীতি আর সাম্যচেতনায় ভাস্বর। ধনী-গরিব নির্বিশেষে সবাই ঈদের আনন্দে শামিল হবে- এটাই এই উৎসবের মূল মর্মবাণী। মাসজুড়ে রোজা পালনের মাধ্যমে সংযম আর ত্যাগের শিক্ষা অর্জন এই আনন্দের জন্য প্রস্তুত করেছে প্রতিটি মুসলমানকে।

ধনী-গরিব সবাই সাধ্যমতো চেষ্টা করছে স্বজন-পরিজন নিয়ে দিনটি উদযাপনের। ঈদের কেনাকাটা সেরে তাই সবাই ছুটেছে মাটি ও নাড়ির টানে শহর ছেড়ে গ্রামে। স্বজন-পরিজন, বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে মিলনের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস দেখা গেছে পথে পথে।

এ উপলক্ষে হাসপাতাল, এতিমখানা ও বন্দীদের জন্য কারাগারগুলোতে উন্নতমানের খাবারের ব্যবস্থা থাকছে। ঈদ আনন্দ বাড়িয়ে দিতে আছে বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল ও এফএম রেডিওর ঈদের বিশেষ অনুষ্ঠানমালা।

ঈদ উপলক্ষে দৈনিক পত্রিকাগুলো ইতিমধ্যে প্রকাশ করেছে বিশেষ ক্রোড়পত্র। এই আনন্দ বাড়িয়ে দিতে আছে বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল ও এফএম রেডিওর ঈদের বিশেষ অনুষ্ঠানমালা।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.