Main Menu

তাহিরপুরে ভিজিএফের চাল উদ্ধার, ইউপি সদস্যা আটক

নিউজ ডেস্ক:
সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার একটি মুদির দোকান থেকে সরকারি ৭ বস্তা ভিজিএফের চাল উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী লালঘাট গ্রামের মৃত মিছির আলীর ছেলে ইছব মিয়ার মুদি দোকান থেকে ভিজিএফের সাত বস্তা চাল উদ্ধার করে থানা পুলিশ।

এসময় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আলাউদ্দিন উপস্থিতিত ছিলেন।

জানা যায়, আসন্ন ঈদ উপলক্ষে তাহিরপুর উপজেলার ১নং শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের ৯ ওয়ার্ডের দুঃস্থদের মধ্যে জনপ্রতি ১০ কেজি করে বিতরণের জন্য ৩১ মেট্রিক টন ৪৬০ কেজি ভিজিএফের চাল বরাদ্দ দেয়া হয়। মঙ্গলবার সকালে তা ইউনিয়ন পরিষদে বিতরণের সময় ইউনিয়নের সংরক্ষিত ১ ও ২নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য মিনারা বেগম তার ওয়ার্ডের ২০০ জন উপকারভোগীর নামে মাস্টাররোল দাখিল করে জনপ্রতি ১০ কেজি করে চাল বিতরণের নামে ৪০ বস্তা ভিজিএফের চাল বাগিয়ে নেন। পরে সুযোগ বুঝে বুধবার রাতে ভিজিএফের বেশ কয়েক বস্তা চাল লালঘাট সড়কে থাকা মুদি দোকানদার ইছব মিয়া সহ কয়েকজনের কাছে বিক্রয় করে দেন। একপর্যায়ে বিষয়টি জানাজানি হলে বুধবার রাতে স্হানীয় লোকজন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কে অবগত করেন।

পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশ্যে উপজেলার এসিল্যান্ডের উপস্থিতিতে সাত বস্তা চাল পুলিশ জব্দ করে।

শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের ১ ও ২নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্যা মিনারা বেগম বলেন, শামছুল হককে ১ বস্তা সহ ৫ বস্তা চাল লালঘাট গ্রামের ২৫ জনের নামে দেওয়া হয়েছিল। বিক্রি করার জন্য দেয়া হয়নি।

তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. রায়হান কবির জানান, ভিজিএফের চাল উদ্ধার করা হয়েছে, চাল বিতরণ না করে আত্মসাৎ করায় সংশ্লিষ্ট সংরক্ষিত ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্ততি চলছে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.