Main Menu

প্রবাসীদের জোর করে শ্রম, তোপের মুখে মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক:
কলিং ভিসা চালুসহ মালয়েশিয়াতে অভিবাসী শ্রমিকদের জিম্মি করে শ্রম আদায় ইস্যুতে তোপের মুখে পড়েছেন দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুকসেরি এম সারাভানান। জানুয়ারিতে কলিং ভিসার সিন্ডিকেট প্রশ্নে এবং সম্প্রতি প্রবাসী শ্রমিকদের জোর করে শ্রম আদায় ইস্যুতে মন্ত্রীর সমালোচনা করছেন বিশিষ্টজনরা।

সোমবার দেশটির জাতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদপত্রের প্রতিবেদন অনুযায়ী জানা গেছে, মালয়েশিয়ায় প্রবাসীদের জোর করে শ্রম বন্ধের জন্য অন্যের ওপর নির্ভরশীল না হয়ে নিজ থেকেই পদ্ধতিগত ব্যবস্থা অবলম্বন করার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে পরামর্শ দিয়েছেন দেশটির পেনাং রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী পি রামাসামি।

এক বিবৃতিতে মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানানকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে তিনি বলেন, মন্ত্রী সারাভানানের উচিত কেন জোর করে শ্রম হচ্ছে তা খুঁজে বের করা। এর জন্য মার্কিন কূটনৈতিককে অনুরোধ করা মানে আমাদের নিজেদের সিস্টেমকে দুর্বলভাবে উপস্থাপন করা।

মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানান এ বছরের শুরুতে কলিং ভিসায় সিন্ডিকেট ইস্যুতেও দেশটির এনজিও এবং মানবাধিকার সংগঠনগুলোর সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন। তখন মন্ত্রীও সমালোচকদের বিরুদ্ধে পাল্টা সমালোচনা করেছেন।

গত সপ্তাহে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) এবং মালয়েশিয়ায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসকে জোর করে শ্রমের অভিযোগের যেকোনো তদন্তের বিষয়ে মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়কে অবহিত করতে বলা হয়েছে যাতে মালয়েশিয়ার পণ্যগুলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে বাধা দেয়ার আগে সমাধান খুঁজে পাওয়া যায়।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.