Main Menu

ইউক্রেন যুদ্ধের শরণার্থীর সংখ্যা ৫০ লাখ পার

নিউজ ডেস্ক:
ইউক্রেনের যুদ্ধ থেকে ইতিমধ্যেই ৫০ লাখেরও বেশি মানুষ শরণার্থী হয়েছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক দপ্তর (ইউএনএইচসিআর)। এছাড়া দেশটিতে অবস্থানরত প্রায় ৭১ লাখ মানুষ তাদের ঘরবাড়ি ছেড়ে ইউক্রেনের কম ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চলগুলোতে আশ্রয় নিয়েছেন।

ইউএনএইচসিআর বুধবার জানিয়েছে, ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর দুই মাস পার হওয়ার আগেই দেশটি থেকে ৫০ লাখেরও বেশি মানুষ অন্যদেশে পালিয়ে গেছেন।

জাতিসংঘের এই সংস্থাটির পরিসংখ্যান অনুযায়ী, রাশিয়ার আগ্রাসনের শুরু থেকে এ পর্যন্ত ৫,০৩৪,৪৩৯ ইউক্রেনীয় নিজ দেশ ছেড়েছেন। তাদের অধিকাংশই ইউরোপের বিভিন্ন দেশে আশ্রয় নিয়েছেন৷

ইউএনএইচসিআর-এর ডেপুটি হাইকমিশনার কেলি ক্লেমেন্টস এই বিষয়ে সতর্ক করে বলেন, “আমরা এখন পর্যন্ত ৫০ লাখ শরণার্থী গণনা করেছি। এই পরিসংখ্যানটি প্রকৃতপক্ষে ৫০ লাখ মানুষের একক ক্ষতি ও আঘাতের প্রতিনিধিত্ব করে।”

অপরদিকে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা আইওএম জানিয়েছে, প্রায় ৭১ লাখ মানুষ তাদের বাড়ি ছেড়ে ইউক্রেনের বিভিন্ন কম ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চলগুলোতে আশ্রয় নিয়েছে।

আইওএম আরও জানায়, ইউক্রেনীয় শরণার্থীরা ছাড়াও দেশটিতে থাকা দুই লাখ ১৮ হাজারেরও বেশি অ-ইউক্রেনীয় নাগরিক ইউক্রেন ত্যাগ করেছেন। যাদের বেশিরভাগই মূলত অভিবাসী ছাত্র এবং বিদেশি শ্রমিক। তাদের মধ্যে অনেকেই আফ্রিকান দেশ যেমন নাইজেরিয়া, ক্যামেরুন বা মরক্কোর নাগরিক। এছাড়া বিপুল ভারতীয়, পাকিস্তানি ও বাংলাদেশি নাগরিকরাও ছাত্র ও শ্রমিক হিসেবে বসবাস করছিলেন ইউক্রেনে। যদিও অনেক বিদেশি ছাত্র এবং শ্রমিক তাদের নিজ দেশে ফিরে গিয়েছে।

ইউক্রেনীয় শরণার্থীদের মধ্যে ৯০ শতাংশই নারী এবং শিশু, যারা প্রধানত ইউক্রেনের সীমান্তবর্তী দেশগুলিতে আশ্রয় নিয়েছেন।

দেশত্যাগ করা ইউক্রেনীয়দের মধ্যে প্রতি ১০ জনের ৬ জন আশ্রয় নিয়েছেন পোল্যান্ডে। অর্থাৎ প্রায় ৩০ লাখ শরণার্থী দেশটিতে রয়েছেন। সবচেয়ে বেশি ইউক্রেনীয় শরণার্থীদের আশ্রয় দেয়া দ্বিতীয় দেশ হল রোমানিয়া যেখানে মোট ৭৫৭,০৪৭ জন রয়েছেন। এছাড়া, হাঙ্গেরি এবং মলদোভা উভয় দেশ গড়ে ৪ লাখেরও বেশি শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছেন।

এছাড়া, হাজার হাজার ইউক্রেনীয় তাদের দেশ ছেড়ে রাশিয়া ও বেলারুশের মতো দেশগুলোতেও আশ্রয় নিয়েছে। গত ১৯ এপ্রিল অবধি রাশিয়ায় অবস্থান করা ইউক্রেনীয় শরণার্থীর সংখ্যা ছিল ৫৪৯,৮০৫ জন। অপরদিকে রাশিয়ার মিত্রদেশে হিসেবে পরিচিত বেলারুশে আশ্রয় নিয়েছেন ২৩,৭৫৯ ইউক্রেনীয়।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.