Main Menu

যেভাবে অস্ট্রেলিয়ার পিআর ভিসার আবেদন করবেন

বিদেশবার্তা২৪ ডেস্ক:
অস্ট্রেলিয়া দীর্ঘকাল ধরে অভিবাসীদের পছন্দসই গন্তব্য। দেশটির ইতিবাচক দিকও রয়েছে। অস্ট্রেলিয়া উচ্চতর জীবনযাত্রার পাশাপাশি একটি বহুসাংস্কৃতিক শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের জন্য উদাহরণ।

অস্ট্রেলিয়ান স্থায়ী আবাসিক ভিসার কিছু সুবিধা রয়েছে সেগুলো হলো-
– দেশের যেকোন এলাকায় বসবাস, কাজ, বসতি স্থাপন করা যায়।
– আপনার সাথে যোগ দেওয়ার জন্য পরিবারের সদস্যদের অফিসিয়াল ক্লিয়ারেন্স দেয়া হয়।
– একটি নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত অল্পবয়সীরা বিনামূল্যে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে।
– স্থায়ী বসবাসের জন্য পরিবারকে স্পনসর করার সম্ভাবনা থাকে।
– নিজের এবং পরিবারের জন্য কাজ এবং স্বাস্থ্য সুবিধা গ্রহণ করা যায়।

অস্ট্রেলিয়ান পিআর ভিসার বিকল্প-
অস্ট্রেলিয়ায় মেধা-ভিত্তিক অভিবাসন প্রধানত পয়েন্ট-ভিত্তিক, পেশাগত বা ব্যবসায়িক যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা এবং ইংরেজি দক্ষতার উপর নির্ভরশীল। যোগ্যতা-ভিত্তিক অভিবাসনকে দুটি ভাগে ভাগ করা যায়:
– অভিবাসন চিত্র
– ব্যবসায়িক মাইগ্রেশন

অন্যান্য অ-পয়েন্ট-ভিত্তিক পদ্ধতির মধ্যে রয়েছে:
– পারিবারিক অভিবাসন
– বিশিষ্ট প্রতিভা
– আঞ্চলিক দক্ষ মাইগ্রেশন স্কিম (RSMS)
– শরণার্থী এবং মানবিক ভিসা

অস্ট্রেলিয়ান পিআর ভিসা আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র
অস্ট্রেলিয়ার স্থায়ী বাসিন্দা হওয়ার জন্য আপনি ভিসার জন্য আবেদন করার আগে, আপনাকে নির্দিষ্ট ডকুমেন্টেশন পূরণ করতে হবে। সবচেয়ে সাধারণ ডকুমেন্টেশন হলো:
– আবেদনপত্র
– শিক্ষাগত প্রশংসাপত্র
– জন্ম সনদ
– চারিত্রিক প্রশংসাপত্র
– মনোনয়নের প্রমাণ (যদি থাকে)
– ইংরেজি দক্ষতার জন্য IELTS বা PTE পরীক্ষার ফলাফল
– ২টি পাসপোর্ট সাইজ ছবি
– যদি পত্নীও পিআর ভিসার জন্য আবেদন করেন তাহলে স্ত্রীর দক্ষতার নথি
– পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেশন (পিসিসি)
– ব্যবসায়িক রেফারেন্স অক্ষর
– অস্ট্রেলিয়ান জনসংযোগের জন্য যোগ্যতার মানদণ্ড

অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন ব্যবস্থা স্কোরিং সিস্টেমে কাজ করে। অস্ট্রেলিয়ান স্থায়ী আবাসিক ভিসার জন্য আবেদন করতে চাইলে পয়েন্ট-ভিত্তিক পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। স্কোরিং সিস্টেম কিছু ধরনের জন্য প্রাসঙ্গিক। যেমন-
দক্ষ মাইগ্রেশনের অধীনে সাবক্লাস ১৮৯,১৯০, এবং ৪৯১। এর জন্য ন্যূনতম মানদণ্ড হল ৬৫। সাবক্লাস ১৮৮-এ শুধু দুটি স্ট্রীম বিজনেস মাইগ্রেশনে পয়েন্ট টেস্ট করা হয়, যার ন্যূনতম স্কোর ৬৫।

প্রতিটি ভিসা এবং সাবক্লাসের নিজস্ব পয়েন্ট সিস্টেম রয়েছে। আপনি যত বেশি পয়েন্ট পাবেন, আপনার স্থায়ী ভিসা পাওয়ার সম্ভাবনা তত বেশি।

অস্ট্রেলিয়ান পিআর-এর জন্য যেভাবে আবেদন করবেন
ধাপ ১: ৪০টিরও বেশি অস্ট্রেলিয়ান অভিবাসী ভিসা রয়েছে যা আপনাকে অস্ট্রেলিয়ায় কাজ করতে এবং অনির্দিষ্টকালের জন্য বসবাস করার অনুমতি দেয়। সুতরাং যাচাই করুন এবং খুঁজে বের করুন কোনটি আপনার জন্য আদর্শ।

ধাপ ২: ভিসার জন্য আপনার যোগ্যতা যাচাই করুন। একবার আপনি সঠিক ভিসা নির্বাচন করার পরে আবেদনের মানদণ্ড পরীক্ষা করুন। ভিসার জন্য একজন স্পনসর, একজন নাগরিক আত্মীয়, একটি ব্যবসায় বা নির্দিষ্ট কর্মসংস্থানে অবদান রাখার জন্য নির্দিষ্ট অর্থের প্রয়োজন হতে পারে।

ধাপ ৩: অস্ট্রেলিয়ায় অভিবাসী ভিসার জন্য আবেদন জমা দিন। সঠিক ভিসা আবিষ্কার করার পরে এবং আপনি সমস্ত যোগ্যতার শর্ত পূরণ করেছেন তা নিশ্চিত করার পরে আবেদন করতে পারেন।

ধাপ ৪: সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করুন। এমনকি ভিসার অনুরোধের প্রকারের উপর নির্ভর করে আপনার ভিসার আবেদনের প্রতিক্রিয়ার জন্য আপনাকে কিছু দিন বা সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হতে পারে।

ধাপ ৫: একটি ভিসা পান। আপনাকে একটি অভিবাসী ভিসা দেওয়া হবে এবং আপনার আবেদন মঞ্জুর হওয়ার পর স্থায়ীভাবে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস ও কাজ করতে পারবেন। কিছু পরিস্থিতিতে, আপনি শিগগিরই নাগরিকত্বের জন্য যোগ্য হতে পারেন।

অস্ট্রেলিয়ায় অভিবাসী ভিসা পাঁচ বছর মেয়াদে দেওয়া হয় এবং নবায়নযোগ্য। আপনার ভিসা প্রযোজ্য না হওয়া পর্যন্ত আপনি অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করতে এবং ত্যাগ করতে পারবেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.