Main Menu

চলতি বছর ভূমধ্যসাগরে মারা গেছেন ৫০০ অভিবাসী: আইওএম

নিউজ ডেস্ক:
চলতি বছর লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে প্রবেশের চেষ্টায় এখন পর্যন্ত প্রায় ৫০০ জন প্রাণ হারিয়েছেন৷ সোমবার আইওএম সমুদ্রে অভিবাসীদের পরিস্থিতি নিয়ে তাদের হালনাগাদ বার্তায় এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, সর্বশেষ সোমবার লিবিয়া উপকূলে অভিবাসীদের বহনকারী একটি নৌকা ডুবে চারজন প্রাণ হারিয়েছেন। নিখোঁজ আছেন আরো ১৪ জন৷ চলতি মাসের ৩ এপ্রিল থেকে ৯ এপ্রিল পর্যন্ত লিবিয়ার উপকূলরক্ষীরা ৪৯৭ জনকে সমুদ্র থেকে উদ্ধার করেছে বা যাত্রায় বাধা দিয়ে দেশটিতে নিয়ে এসেছে৷

সব মিলিয়ে চলতি বছর প্রায় চার হাজার অভিবাসীকে লিবিয়ায় ফিরিয়ে এনেছে দেশটির উপকূলরক্ষীরা৷

আইওএম এর তথ্য অনুযায়ী, ২০২১ সালে ফিরিয়ে আনা হয়েছিল ৩২ হাজার ৪২৫ জনকে৷ গত বছর এই পথে ৮৯১ জন নিখোঁজ এবং ৬৬২ জনের নিশ্চিত মৃত্যুর তথ্য পাওয়া গেছে৷

জাতিসংঘের অভিবাসী বিষয়ক সংস্থা আইওএম এক টুইটে জানিয়েছেন, সর্বশেষ রবিবার লিবিয়ার সারমেনে ২০ অভিবাসীকে নিয়ে একটি কাঠের নৌকা ডুবে গেছে। এ ঘটানায় চারটি মরদেহের পাশাপাশি দুইজনকে জীবিত উদ্ধার করা গেছে৷

আইওএম নিখোঁজ অভিবাসী প্রকল্পের তথ্য বলছে, ২০২২ সালের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত মধ্য ভূমধ্যসাগর অতিক্রম করতে গিয়ে ৪৭৫ জন মারা গেছেন৷ ২০১৪ সাল থেকে হিসাব করলে ১৪ হাজার অভিবাসী এ রুটে সাগরে ডুবে প্রাণ হারিয়েছেন ৷

এদিকে ভূমধ্যসাগরে অনুসন্ধানকারী বেসরকারি সংস্থা অ্যালার্ম ফোন এক টুইট বার্তায় সাম্প্রতিক কয়েকটি বড় নৌকাডুবির তথ্য তুলে ধরেছে৷

এতে বলা হয়েছে, আট এপ্রিলের একটি ঘটনায় টিউনিশিয়ার উপকূলে চার জন মৃত্যুবরণ করার পাশাপাশি ছয় জন নিখোঁজ হয়েছেন৷ ৯ এপ্রিল লিবিয়ায় আরেকটি দুর্ঘটনায় মারা যান পাঁচজন, নিখোঁজ হন ১১ জন৷ একই দিনে তিউনিশিয়ায় চারজন প্রাণ হারিয়েছেন ও ১০ জন নিখোঁজ হয়েছেন৷ আর সবশেষ ১১ এপ্রিল মারা গেলেন চারজন, যেখানে নিখোঁজ আরো ১৪ জন৷

এক ভিডিওতে অ্যালার্ম ফোন বলেছে, ‘লিবিয়াতে অসংখ্য শরণার্থী সহিংসতার নিষ্ঠুর চক্রের ফাঁদে আটক পড়ে আছে৷’






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.