Main Menu

সিলেটে নাজিম হত্যা: ১০ জনের নামে মামলা, রিমান্ডে জুয়েল

নিউজ ডেস্ক:
সিলেটে এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ইমার্জেন্সি গেইটের সামনে শনিবার (৯ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে ছুরিকাঘাতে এক যুবক খুন হন। সিনিয়র জুনিয়র নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে ওসমানী মেডিকেলের সামনের সড়কে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সিলেট নগরীর মুন্সিপাড়া এলাকার মীর কাশেমের ছেলে জুয়েল আহমদকে এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে আটক করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

রোববার (১০ এপ্রিল) বিকেলে জুয়েলকে আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিকে ছেলে হত্যার ঘটনায় বাদি হয়ে রবিবার বিকেলে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেছেন নাজিমের পিতা নুর মিয়া। মামলার এজাহারে আসামি করা হয়েছে ১০ জনকে। এছাড়াও অজ্ঞাত আসামী রয়েছেন ৭-৮ জন।

মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোতয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ আলী মাহমুদ।

তিনি জানান, জুয়েলকে আদালতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

তিনি আরও বলেন, এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকা সবাইকে গ্রেপ্তার করতে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত আছে। পাশাপাশি রিমাণ্ডে নেয়া জুয়েলের সহযোগিতায় সম্পৃক্তদের সনাক্তকরণ ও গ্রেপ্তার প্রক্রিয়া দ্রুত হবে বলে আশা করছি।

উল্লেখ্য, শনিবার (৯ এপ্রিল) রাতে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ইমার্জেন্সি গেইটের সামনে কথা কাটাকাটির জেরে নাজিম আহমদ (২০) নামের যুবক খুন হয়। পেশায় তিনি হোটেল শ্রমিক। তিনি সুনামগঞ্জের ধর্মপাশার নুর মিয়ার পুত্র ও সিলেট নগরীর দরগা মহল্লা এলাকার বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাত সাড়ে নয়টার সময় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ইমার্জেন্সি গেইটের সামনে কয়েকজন যুবকের তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। এরপর মেডিকেল এলাকা থেকে একজনকে আটক করা হয়।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.