Main Menu

মালদ্বীপে ‘বাদশাহ সালমান মসজিদ’ উদ্বোধন

নিউজ ডেস্ক:
দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর মালদ্বীপের বৃহত্তম মসজিদ ‘বাদশাহ সালমান মসজিদ’ উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার (১ এপ্রিল) জুমার নামাজের মাধ্যমে এ মসজিদটি উদ্বোধন করা হয়।

মসজিদটি সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের তত্ত্বাবধানে অর্থায়ন করা হয়েছিলো। তিনি এতে প্রায় ২৫০ মিলিয়ন ডলার দিয়েছেন। ২০১৮ সালে মালেতে এ মসজিদের কাজ শুরু করা হয়।

প্রকৃতির অপার সৌন্দর্যের পাশাপাশি মুসলমানদের ইবাদত-বন্দেগির জন্য মালদ্বীপে রয়েছে ছোট বড় অনেক মসজিদ। তবে রাজধানী মালেতে মসজিদের সংখ্যা বেশি। মালদ্বীপের সবচেয়ে বড় মসজিদ কিং সালমান মসজিদ। নান্দনিকতায়ও এটি অদ্বিতীয়।

বাদশাহ সালমান মসজিদটি ৬ তলা বিশিষ্ট। এতে ১০ হাজারেরও বেশি মুসল্লি নামাজ পড়তে পারবেন। এর মধ্যে রয়েছে একাধিক কাজে ব্যবহারযোগ্য হলরুম। আন্তর্জাতিক গ্রন্থাগার, পবিত্র কোরআন শিক্ষার কেন্দ্র, শ্রেণিকক্ষ ও সম্মেলনকক্ষ।

গণমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুসারে, মসজিদটিতে ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের প্রতিনিধিত্বকারী ৫টি মিনার রয়েছে। মসজিদটিতে ৪৪ হাজার ১০০ বর্গফুট পার্কিং এলাকাও রয়েছে।

২০১৬ সালে মসজিদ তৈরির ঘোষণা দেওয়া হয়। নির্মাণ শুরু হয় ২০১৮ সালের শুরুতে। সরকার প্রথমে ২০২০ সালের শুরুতে মসজিদটি উদ্বোধন করার পরিকল্পনা করেছিলো। পরে এ বছর রমজান মাসে মসজিদটি উদ্বোধন করার কথা হয়। কিন্তু ক্রমবর্ধমান কোভিড-১৯ মহামারির কারণে দুবারই তা স্থগিত করা হয়।

মসজিদটির নির্মাতা তুর্কি ঠিকাদার ‘টারমাকস গ্রুপ’। প্রতিষ্ঠানটি রাজধানীর শহরতলী হুলহুমালের ট্রিটপ হাসপাতালও নির্মাণ করেছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published.