Main Menu

বাংলাদেশ এখন উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্বে পরিচিত: পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান

নিউজ ডেস্ক:
পররাষ্ট্রমন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, বাংলাদেশ এখন আর খয়রাতি রাষ্ট্র নয়। এখন একটি উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্বে পরিচিত। গত ১৩ বছরে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অনেক বদলে গেছে। তিনি বলেন, একটি দল চায় দেশকে খয়রাতি রাষ্ট্রে পরিণত করতে। তাইতো তারা বিদেশে চিঠি দেয়, সাহায্য চায়। আর শেখ হাসিনা চায় দেশকে উন্নত সমৃদ্ধশালী দেশে রুপান্তরিত করতে।

বিএনপিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, একটি দল আছে, সেই দলে মুক্তিযোদ্ধাও আছে আবার রাজাকারও আছে। তারা স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না। তারা নির্বাচন মানে না, আইন মানে না, আদালত মানে না। তারা এসপি, ডিসি, ওসি মানে না। সেই দলটিও দেশ শাসন করেছে, কিন্তু দেশে কোন উন্নতি হয়নি। দেশের মানুষ খাবারের অভাবে মরেছে। আপনি নির্বাচন মানেন না, তাহলে কোন মুখে, কোন মর্যাদায় গণতন্ত্রের কথা বলেন। পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, আমরা চাই শান্তি। এখন রাশিয়া-ইউক্রেনের মধ্যে যুদ্ধ চলছে। কিন্তু আমরা কারো পক্ষে না। দুই দেশ আমাদের বন্ধু, আমরা যুদ্ধ চাই না। শান্তি চাই। আমরা চাই বসে আপনারা শান্তি ফিরিয়ে আনুন।

রোববার বিকেলে সিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলা পরিষদ মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে তিনি উপজেলায় নবনির্মিত প্রশাসনিক ভবনসহ ৯টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ২৯টি উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

মন্ত্রী এ সময় আরও বলেন, বিশ্বনাথ উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম নুনু কিছু সহায়তা চাচ্ছে। আমি তাকে সহায়তা দেব। তবে নুনু মিয়ার বিরুদ্ধে আমি যে অভিযোগ পেয়েছি, সেটা তদন্তের জন্য দিয়েছি। তদন্ত স্বাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কিন্তু সেই তদন্ত না হওয়ার আগ পর্যন্ত আমাকে ফোন করে বলবে আমি বিশ্বনাথে আসলে ঝাড়ু মিছিল হবে, সমস্যা হবে। এসব লোকের আমাদের দরকার নেই।

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) ফারুক আহমদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ সুমনের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট শাহ ফরিদ, নাজমিন হোসেন, উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম নুনু মিয়া, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সামসুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহ আসাদ, আসাদুজ্জামান আসাদ, যুগ্ম সম্পাদক আমির আলী চেয়াম্যান, সদস্য অ্যাডভোকেট আলমগীর চেয়ারম্যান। অনুষ্ঠানে মানপত্র পাঠ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মকদ্দছ আলী।

আরও বক্তব্য রাখেন পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক আব্দুল জলিল জালাল, যুগ্ম আহবায়ক আলতাব হোসেন, দশঘর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন, খাজাঞ্চি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শংকর চন্দ্র ধর, সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহবায়ক শাহনেওয়াজ চৌধুরী সেলিম, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি ছোরাব আলী, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আশিক আলী, উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান, উপজেলা ছাত্র লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জুবায়ের আহমদ জয়, কলেজ ছাত্রলীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম রুকন।
এর আগে উপজেলা পরিষদের প্রশাসনিক ভবন, অডিটোরিয়াম, ও বঙ্গবন্ধু ম্যুরালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মন্ত্রী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মজিবর রহমান।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.