Main Menu

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান কানাডা প্রবাসীদের

নিউজ ডেস্ক:

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে কানাডার অর্থনীতিতে ইতোমধ্যেই প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। যুদ্ধের কারণে খাদ্য ও পেট্রোলিয়াম পণ্যের বাজার অস্থিতিশীল হয়ে উঠছে। জ্বালানি তেলের ব্যারেল বৃহস্পতিবারই বেড়ে গেছে।

ঊর্ধ্বমুখী খাদ্যপণ্যের দাম, সেই সঙ্গে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে কানাডার শেয়ারবাজারেও দরপতন হয়েছে। ইতোমধ্যেই কানাডার পুঁজিবাজারেও ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে। এ নিয়ে মাল্টিকালচারিজমের দেশ কানাডায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানিয়ে প্রবাসী বাংলাদেশিরা বিবৃতি দিয়েছেন।

কানাডার নতুন দেশ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক শওগাত আলী সাগর এক বিবৃতিতে বলেছেন, এ মুহূর্তে ইউক্রেনের মানুষগুলো তাদের মাতৃভুমি রক্ষায়, তাদের জীবন রক্ষায়, সন্তানদের জীবন রক্ষায় লড়াই করছে। এ লড়াই বন্ধ হওয়া আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।ইউক্রেনের মানুষগুলোর মৃতদেহের ওপর দাঁড়িয়ে আমরা আমেরিকা, ন্যাটোর, পশ্চিমাদের অতীত কর্মের (কিংবা অপকর্মের) ফিরিস্তির মধ্যে ডুবে না থাকাই ভালো।

বিশিষ্ট কলামিস্ট উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান বলেছেন, আগ্রাসনবাদ শান্তি, স্থিতিশীলতা ও উন্নয়নের পরিপন্থী, যুদ্ধ কখনো শান্তির পক্ষে টেকসই সমাধান নয়। মানবতাকে বিপর্যস্ত করার যে ঘৃণ্য ও বর্বরোচিত প্রচেষ্টা ইউক্রেনে চলছে, বিশ্বশান্তির স্বার্থে অনতিবিলম্বে তা বন্ধ করতে হবে। বিশ্ব নেতৃত্ব পারস্পরিক লাভ-লোকসান পেছনে ফেলে, শান্তি ও মানবতাকে অগ্রাধিকার দিয়ে কার্যকর ভূমিকায় এগিয়ে আসতে হবে।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও এবিএম কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট ড. বাতেন বলেন, যে কোন দেশে যুদ্ধ কোনোভাবেই কাম্য নয়। এমনকি রাশিয়ার মস্কোসহ ৫৪টি শহরে নাগরিকরা বিক্ষোভ করেছে, পুতিনের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছে। রাশিয়ার সাংবাদিক, লেখক বুদ্ধিজীবদের উল্লেখযোগ্য একটা অংশ যোগ দিয়েছে সেই প্রতিবাদে। মানবিকতা সবার ওপরে রেখে যুদ্ধ বন্ধের তীব্র আহ্বান জানাই।

 

রম্য লেখক বায়াজিদ গালিব বলেন, কোনো দেশকে আক্রমণ করে সে দেশে আগ্রাসন চালানো কখনই সুফল বয়ে আনতে পারে না। রাশিয়া ইউক্রেনকে আক্রমণ না করে আলোচনার মাধ্যমে তাদের সমস্যার সমাধান করতে পারতো। এ যুদ্ধের তীব্র সমালোচনা করছি এবং যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছি।

সিলেট অ্যাসোসিয়েশন অফ ক্যালগেরির সভাপতি রূপক দত্ত বলেন, যুদ্ধ নয় শান্তি চাই, এ স্লোগান হোক সারা বিশ্বের। এখনও করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে ওঠেনি, এরই মধ্যে এ ধরনের যুদ্ধ সত্যি অপ্রত্যাশিত। ইউক্রেনের ব্যাপারে পুতিনকে আরও সহনশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়ে যুদ্ধ বন্ধের তীব্র আহ্বান জানাচ্ছি।

বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও সাবেক ছাত্রনেতা কিরণ বণিক শংকর বলেন, ইউক্রেনে রুশ আক্রমণ অগ্রহণযোগ্য মানবতাবিরোধী। এর প্রভাব পড়ছে সারা বিশ্বে। শিগগিরই এ সিদ্ধান্ত থেকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বেরিয়ে আসবেন এবং যুদ্ধ বন্ধ করার জন্যও জোর দাবি জানাচ্ছি।

আলবার্টার প্রথম অনলাইন পোর্টাল প্রবাস বাংলা ভয়েসের প্রধান সম্পাদক আহসান রাজীব বুলবুল বলেন, সভ্য সমাজে যুদ্ধ কখনোই কাম্য নয়। দ্রুত এ সমস্যার সমাধান হবে, যুদ্ধ বন্ধ হবে, মানবিকতা ফিরে আসবে। সারা বিশ্বে অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় থাকবে এমনটাই আমাদের প্রত্যাশা।

অন্যদিকে ইউক্রেনের মানুষদের জন্য তহবিল সংগ্রহে নেমেছেন হলিউডের জনপ্রিয় কানাডিয়ান অভিনেতা রায়ান রেনল্ড। জাতিসংঘের উদ্বাস্তু বিষয়ক হাইকমিশনের হয়ে তিনি কানাডীয়ানদের আহ্বান জানাচ্ছেন আর্থিক সহায়তার। তিনি ঘোষণা দিয়েছেন, কানাডিয়ানরা যে পরিমাণ অর্থ দেবেন, এক মিলিয়ন ডলার পর্যন্ত তিনি আর তার স্ত্রী অভিনেত্রী ব্ল্যাক লিভলি সেই তহবিলে যুক্ত করবেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.