Main Menu

চ্যানেল পারাপার ঠেকাতে উত্তর ফ্রান্সজুড়ে বিশেষ ক্যামেরা

নিউজ ডেস্ক:
যুক্তরাজ্যের অর্থায়নে উত্তর ফ্রান্সের কালে উপকূলজুড়ে শিগগিরই স্থাপন করা হবে বিশেষ নিরাপত্তা ক্যামেরা৷ ২০২১ সালে ইংলিশ চ্যানেল দিয়ে রেকর্ড সংখ্যক অভিবাসী পারাপারের অভিজ্ঞতায় নতুন প্রযুক্তি স্থাপনের এই উদ্যোগ নিয়েছে ফরাসি ও ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ।

অবৈধ উপায়ে চ্যানেল পারাপারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের অংশ হিসেবে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে যাচ্ছে ফ্রান্স ও যুক্তরাজ্য৷ এর আওতায় ব্রিটিশ সরকারের অর্থায়নে ফরাসি উপকূলে স্থাপন করা হবে উন্নত প্রযুক্তির নজরদারি ক্যামেরা৷ উত্তর ফ্রান্সের ডানকের্ক উপকূল থেকে সোমে উপসাগর পর্যন্ত ১৩০ কিলোমিটারেরও বেশি বিস্তৃত অঞ্চলে স্থাপিত হবে এই প্রযুক্তি৷

বিশেষ এই ক্যামেরা স্থাপনে আগ্রহী শহর কর্তৃপক্ষগুলোকে মার্চ মাসের মধ্যেই তহবিলের জন্য আবেদন করতে হবে৷ খবর ইনফোমাইগ্রেন্টসের

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, প্রাথমিক পর্যায়ে উত্তর ফ্রান্সের প্রায় বিশটি শহর কর্তৃপক্ষ এই প্রক্রিয়ার অংশ হতে চেয়ে স্থানীয় পা-দ্যো-কালে প্রেফেকচুরে আবেদন করেছে৷ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছে স্থানীয় দৈনিক লা ভোয়া-দ্যু-নর্দ৷

স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, “এই প্রকল্পটির নামকরণ করা হয়েছে ‘টার্মিনাস’৷ এটি বাস্তবায়নের অংশ হিসাবে একটি দল ক্যামেরার সংখ্যা এবং সুনির্দিষ্ট অবস্থান নির্ণয় করতে জানুয়ারি মাঝামাঝি থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট শহরগুলিতে ভ্রমণ করছে৷’’

প্রেফেকচুর জানিয়েছে, ‘‘মার্চের শুরুতে নির্দিষ্ট প্রকল্পগুলো সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কাছে পাঠানো হবে যাতে তারা ৩১ মার্চের পরে ব্রিটিশ সরকারের তহবিল সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়৷”

একটি ডিক্রির মাধ্যমে ক্যামেরা ব্যবহারের শর্তগুলো নির্দিষ্ট করা হবে৷

ভিসান্ট শহরের মেয়র লরন্স প্রভু জানিয়েছেন, “চারদিক থেকে নজরদারি করতে সক্ষম ক্যামেরাগুলি উপকূলে বিদ্যমান ক্যামেরাগুলির তুলনায় আরও উন্নত হবে৷ কালে থেকে প্রায় বিশ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত শহরে ১৪ টি ক্যামেরা স্থাপন করতে হবে৷’’

ভিসান্ট শহর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, “কিছু ক্যামেরা বিশেষভাবে শুধু গাড়ির নাম্বার প্লেট পড়ার জন্য সমস্ত প্রবেশপথের মোড়ে স্থাপন করা হবে৷’’






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.