Main Menu

মুসলিম শাসিত যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম শহর মিশিগানের হ্যামট্রামক

নিউজ ডেস্ক:
নতুন অধ্যায়ের সূচনা হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যের শহর হ্যামট্রামকে।

২.২ বর্গ মাইলের এ শহরটি গত ৯৯ বছর শাসন করে আসছিলেন পোলিশ-আমেরিকানরা। খবর আরব নিউজের।

কিন্তু এখন চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন, বর্তমানে শহরটির অর্ধেকেরও বেশি বাসিন্দা আরব-মুসলিম। এ ছাড়া অসংখ্য বাংলাদেশিও আছেন এখানে। নতুন বছরে এক নতুন অধ্যায় শুরু হয়েছে শহরটিতে।

কাউন্সিলর থেকে শুরু করে এ শহরের নতুন মেয়র-সবাই মুসলিম। এক কথায় যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম মুসলিমশাসিত শহর এটি।

এ বছরের জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে সব মুসলিম সিটি কাউন্সিলের সঙ্গে শপথ গ্রহণ করেছেন নতুন মেয়র ইয়েমেন বংশোদ্ভূত আমের গালিব।

মেয়র গালিবের জন্ম ইয়েমেনে, ১৮ বছর বয়সে তিনি একাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। এখন তার বয়স ৪২। চিকিৎসা ক্ষেত্রে কাজ করেন এবং ডাক্তার হওয়ার জন্য পড়াশোনা করছেন।

হ্যামট্র্যামকের আগের সেই সুসময় এখন আর নেই। শহরটা ক্ষয়ে যাচ্ছিল। অনেক কারখানা বন্ধ ছিল। অনেক দ্বিতীয় এবং তৃতীয় প্রজন্মের পোলিশ আমেরিকান গত দুই দশকে ডেট্রয়েট শহরতলিতে এবং তার বাইরে চলে গেছেন।

ইয়েমেন এবং বাংলাদেশ থেকে আসা অভিবাসীরা তাদের স্থলাভিশীক্ত হন এবং স্থানীয়দের কছে হ্যামট্রামক এখন সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিমদের শহর।

মেয়র গালিব বলেন, আমি গর্ব বোধ করি এবং আমি একটি বড় দায়িত্ব অনুভব করছি। কারণ, অভিবাসী হিসাবে এই দেশে ব্যবস্থাপক, জনসেবা এবং রাজনৈতিক ক্ষেত্রে আমরাও সফল হতে পারি-এটা প্রমাণ করার জন্য আমাদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে।

যে কোনো ইসলামাভীতিকে অগ্রাহ্য করে, গালিব নাগরিকদের সেবা করার প্রতিশ্রুতি দেন।

তিনি বলেন, সব ধর্মই পুণ্যের কথা প্রচার করে, ইসলাম আমাদের ভালো কাজ করা, মন্দ কাজ এড়িয়ে চলা, অন্যদের সম্মান করা এবং সবার সঙ্গে ভালো আচরণ করতে উৎসাহিত করে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.