Main Menu

ইউপি নির্বাচনে মেম্বার নির্বাচিত হলেন মা-ছেলে

নিউজ ডেস্ক:
পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কাঁঠালবাড়ী ইউনিয়ন থেকে মা ও ছেলে মেম্বার প্রার্থী হয়েছিলেন। দুজনই বিজয়ী হয়েছেন।

শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মাকসুদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, কোনো ধরনের সহিংসতা ছাড়া বিপুল সংখ্যক ভোটার উপস্থিতিতে শিবচরের নির্বাচনটি সারাদেশে একটি মডেল নির্বাচন। আমরা বিজয়ী মা ও ছেলেসহ সব প্রার্থীদের অভিবাদন জানাই।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ৫ জানুয়ারি কাঁঠালবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে ভোট হয়। এতে ১,২ ও ৩নং সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য পদে নির্বাচন করেন মোসা. লুৎফুন্নেছা বেগমসহ তিনজন। আর ২নং ওয়ার্ড সাধারণ সদস্য পদে নির্বাচন করেন তারই ছেলে মো. চুন্নু মিয়াসহ চারজন।

লুৎফুন্নেছা বেগম মাইক প্রতীক আর ছেলে মো. চুন্নু মিয়া মোরগ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

নির্বাচনে চুন্নু ৩৪২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জিয়াউর ফুটবল প্রতীকে পেয়েছেন ৬৭ ভোট। অপরদিকে ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ড সংরক্ষিত সদস্য পদে মোট ২ হাজার ২৪৭ ভোট পেয়ে লুৎফুন্নেছা বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী মোসা. তাছলিমা আক্তার সূর্যমুখী ফুল প্রতীকে পেয়েছেন ১ হাজার ৬৫৩ ভোট।

নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য মো. চুন্নু মিয়া বলেন, চিফ হুইপ নূর-ই আলম চৌধুরীর উদ্যোগে এবার আমাদের উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থিতা উন্মুক্ত ছিল। ফলে সব প্রার্থীই স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটারদের মূল্যায়ন ছিল ব্যাপক ও কঠোর ছিল প্রশাসন। জনগণের ভালোবাসায় আমি ও আমার মা দুজনই জয়লাভ করেছি।

নবনির্বাচিত সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য মোসা. লুৎফুন্নেছা বলেন, আমি এর আগেও নির্বাচন করেছি। কিন্তু জয়লাভ করতে পারিনি। বয়স অনেক হয়েছে তাই এটাই ছিল আমার শেষ নির্বাচন। ভোটারদের এটা বোঝাতে পেরেছি। এলাকার সবাই আমাকে ভোট দিয়েছে। প্রতিটি ওয়ার্ডেই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চেয়ে আমি বেশি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছি। যতদিন বাঁচবো ততদিন সুখ-দুঃখে জনগণের পাশে থাকবো।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.