Main Menu

ইমামের সঙ্গে প্রত্যেক ওঠা-বসায় আল্লাহু আকবার বলতে হবে কি?

ধর্ম ডেস্ক:
দুইটি বিষয়ে কিছু কিছু মুসল্লি সন্দিহান হয়ে পড়েন। তারা আদৌ জানে না যে, তাদের কী করা উচিত। একটি হলো- ইমামে সঙ্গে প্রত্যেক ওঠা-বসায় তাকবির বলতে হবে কিনা। আরেকটি হলো যে, মাসবুক ইমামকে দ্বিতীয় রাকাতের সিজদায় পেয়েছে, তাকে ইমামের প্রথম বৈঠকে তাশাহহুদ পড়তে হবে কিনা বা তখন তার করণীয় কী?

প্রথম প্রশ্নের উত্তর হলো- হ্যাঁ, মুক্তাদি ইমামের সাথে প্রত্যেক ওঠা-বসায় তাকবির বা আল্লাহু আকবার বলবে। এ তাকবিরগুলো বলা মুক্তাদির জন্য সুন্নতও বটে; (আর তাকবিরে তাহরিমা ফরজ)।

আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে আল্লাহর রাসুল (সা.) বলেন, ‘ইমাম নির্ধারণ করাই হয়েছে তার অনুসরণের জন্য। সুতরাং যখন তিনি তাকবির বলেন তোমরাও তাকবির বলো, তিনি যখন রুকু করেন, তোমরাও রুকু কর…।’ (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৭৩৪; ইমদাদুল ফাত্তাহ, পৃষ্ঠা : ৩১৯; হাশিয়াতুত তাহাভি আলাল মারাকি, পৃষ্ঠা : ২৮২)
দ্বিতীয় প্রশ্নের উত্তর হলো- হ্যাঁ, মাসবুক ইমামের প্রথম বৈঠকে শরিক হলেও তাশাহহুদ পড়বে। এক্ষেত্রে তার দুই রাকাত পূর্ণ না হলেও ইমামের অনুসরণে তাশাহহুদ পড়বে। ইবরাহিম নাখায়ি (রহ.) থেকে বর্ণিত আছে যে, তিনি বলেন- ‘মাসবুক ইমামের সাথে প্রত্যেক বৈঠকেই তাশাহহুদ পড়বে।’ (কিতাবুল আছার, ইমাম মুহাম্মাদ, বর্ণনা : ১৩১; বাদায়িউস সানায়ি : ১/৫৬৩; মুখতারাতুন নাওয়াজিল : ১/২৯৯; খুলাসাতুল ফাতাওয়া : ১/১৫৯; ফাতাওয়া ওয়ালওয়ালিজিয়া : ১/১০১; রাদ্দুল মুহতার : ২/৮৫)

প্রশ্নটি করেছেন : হাসিবুল ইসলাম প্রান্ত, খৈয়াছড়া, মিরসরাই, চট্টগ্রাম।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.