Main Menu

লিবিয়ায় পুলিশের গুলিতে সিলেটী যুবক নিহত

নিউজ ডেস্ক:
সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার খশির আবদুল্লাহপুরে এলাকার আলা উদ্দিনের ছেলে আমিনুল ইসলাম (২২) স্বপ্ন ছিল লিবিয়া হয়ে ভূমধ্য সাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপের দেশ ইতালিতে যাওয়ার। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে দালালের হাত ধরে রওনা দিয়েছিলেন। কিন্তু তার সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি তার।

লিবিয়ার জেল থেকে পালাতে গিয়ে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন আমিনুল। রবিবার (২ জানুয়ারি) লিবিয়ায় আমিনুলের সাথে থাকা এক ব্যক্তি জানান, লিবিয়ার জেল থেকে পালাতে গিয়ে পুলিশের গুলিতে নিহত হন আমিনুল।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বছর খানেক আগে ইউরোপ যাওয়ার জন্য দালালের মাধ্যমে লিবিয়ায় পাড়ি জমান আমিনুল ইসলাম। তিন মাস পূর্বে ইতালির উদ্দেশে রওনা হওয়ার সময় আটক হন লিবিয়া পুলিশের হাতে। এরপর থেকে পরিবারের সাথে তার আর যোগাযোগ হয়নি।

রবিবার বিকেলে লিবিয়ায় অবস্থানরত বিয়ানীবাজার উপজেলার চারখাই ইউনিয়নের এক যুবক ফোনে জানান, আমিনুল জেল থেকে পালাতে চাইছিলেন। এসময় পুলিশের গুলিতে তিনি মারা গেছেন। নিহতের পর আমিনুলকে সেদেশেই দাফন করা হয়েছে।

এদিকে, পরিবারের বড় ছেলের এমন করুণ মৃত্যুতে শোকের মাতম চলছে আমিনুলের পরিবারে। বারবার মূর্ছা যাচ্ছেন আমিনুলের মা সুফিয়া বেগম। সন্তানহারা মাকে সান্তনা দেওয়ার কোনো ভাষাও জানা নেই আত্মীয়-স্বজনদের।

আমিনুলেন বাবা সিএনজি অটোরিক্সা চালক আলা উদ্দিন বলেন, সহায় সম্বল বিক্রি করে ছেলেকে ইতালি পাঠানো উদ্দেশ্য লিবিয়ায় পাঠিয়ে ছিলাম। জেলে যাবার আগে প্রায় ফোনে কথা হত তার সাথে কিন্তু গত তিন মাস থেকে তার কোন খোজ পাচ্ছি না। যে দালালের মাধ্যমে তাকে পাঠিয়ে ছিলাম তার সাথেও যোগাযোগ করলে সে ও আমার ছেলের কোন খোজ দিতে পারেনি। কিন্তু গত রবিবার আমার পরিবারের ফোনে লিবিয়া থেকে একজন ফোন করে জানায় আমিনুল পুলিশের গুলিতে মারা গেছে। তবে এখন পর্যন্ত অফিসিয়ালি তার মৃত্যুর খবর পাইনি। আমরা চেষ্টা করছি লিবিয়াস্থ বাংলাদেশি দূতাবাসের মাধ্যমে নিশ্চিত হতে। এ জন্য আমি সরকারের সহযোগিতা কামনা করছি।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published.